মির্জাপুরে পৌর মেয়র সালমাসহ চার কর্মকর্তাকে রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবর্ধনা

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নবনির্বাচিত প্রথম মহিলা পৌর মেয়র সালমা আক্তার শিমুলসহ চার কর্মকর্তাতে মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি দৈনিক ইত্তেফাক এবং মোহনা টেলিভিশনের প্রতিনিধি মীর আনোয়ার হোসেন টুটুলের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক মোস্তাকিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান।
গতকাল বুধবার রাতে মির্জাপুর উপজেলা সদরের কলেজ রোডে মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির মিলনায়তনে তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকগন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিলেন। সংবর্ধিতরা হলেন প্রয়াত জনপ্রিয় মেয়র মো. সাহাদত হোসেন সুমনের সহধর্মীনি নবনির্বাচিত প্রথম পৌর মেয়র সালমা আক্তার শিমুল, মির্জাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মীর্জা মো. জুবায়ের হোসেন, বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের সভাপতি ও টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার কৃতি সন্তান খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জল এবং গোড়াই হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোজাফ্ফর হোসেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই সংবর্ধিত চারজন এবং প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি মহোদয়কে ফুলের তোরা দিয়ে বরন করে নেন সাংবাদিকগন।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আবদুল মালেক মোস্তাকিম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর সঠিক দিক নির্দেশনায় বর্তমান সরকার দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ বিনির্মানে সরকারের পাশাপাশি গনমাধ্যমকর্মীদেরও অগ্রনী ভুমিকা রয়েছে। স্থানীয় সাংবাদিকদের আজকের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানই তার প্রমান। বিশেষ অতিথি মো. সায়েদুর রহমান বলেন, দেশের আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়নে পুলিশ এবং গনমাধ্যমকর্মী একে অপরের পরিপুরক হিসেবে কাজ করে থাকেন। মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকগন তার শ্রেষ্ঠ উদাহারন।
সংবর্ধিত নবনির্বাচিত পৌর মেয়র সালমা আক্তার শিমুল বলেন, আমার স্বামী প্রয়াত মো. সাহাদত হোসেন সুমন ছিলেন সৎ, নিষ্ঠাবান এবং দায়িত্বশীল একজন পৌর মেয়র। তিনি অকালে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। বর্তমান সরকার, স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও পৌরবাসি আমার উপর যে দায়িত্ব অর্পন করেছেন সকলের সহযোগিতায় অসমাপ্ত উন্নয়ন মুলক কাজ করতে চাই। মীর্জা মো. জুবায়ের হোসেন বলেন, জনগনের সেবার জন্য সরকার আমাদের উপর যে দায়িত্ব দিয়েছেন দেশের উন্নয়নে সঠিক ভাবে কাজ করতে চাই। এ জন্য স্থানীয় সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন। খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জল বলেন, আমি মির্জাপুরের সন্তান। এলাকাবাসির দোয়া ও ভালবাসায় বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। সরকার এবং জনগন আমার উপর যে বিশাল দায়িত্ব দিয়েছেন নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে দেশের উন্নয়নে সকলেল সহযোগিতায় কাজ করতে চাই। মো. মোজাফ্ফর হোসেন বলেন, আমরা যার যার অবস্থান থেকে যদি সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করি, তবেই দেশ ও জাতির উন্নয়ন সম্ভব। বর্তমান সরকার সেই লক্ষ ও উদ্যেশ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। অনুষ্ঠানে মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সকল সদস্য ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সুশিল সমাজের নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।