মির্জাপুরে পুলিশ পরিচয়ে ফিল্মি স্টাইলে ডাকাতি ২০ লাখ টাকার মালামাল লুট

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল ॥
নির্মানাধীন প্রকল্পের ৩৩ কেভি পাওয়ার গ্রিড বিদ্যুৎ অফিসে পুলিশ পরিচয়ে দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতের হামলায় পরেশ নামে এক প্রকৌশলী আহত হন। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সংঘবদ্ধ ডাকাত দল ৩৩ কেভি পাওয়ার গ্রিড বিদ্যুৎ অফিসে ঢুকে ফিল্মি স্টাইলে অস্্েরর মুখে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জিম্মি করে নগদ টাকাসহ প্রায় ২০ লাখ টাকার মালামাল লুটে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পরেছে। গতকাল বুধবার রাতে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক সংলগ্ন মির্জাপুর উপজেলার গোড়াইল নয়াপাড়া নামক এলাকায় এ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতির ঘটনায় নগদ টাকাসহ মালামাল উদ্ধার ও ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কয়েকটি ইউনিট মাঠে কাজ করছেন বলে পুলিশ জানিয়েছেন।
আজ বৃহস্পতিবার নির্মানাধীন প্রকল্পের ৩৩ কেভি পাওয়ার গ্রিড বিদ্যুৎ অফিসের নিরাপত্তাকর্মী মো. বাবুল হোসেন অভিযোগ করেন, গতকাল বুধবার সন্ধ্যা সারে ৬টার দিকে এক লোক নিজেকে মির্জাপুর থানার নতুন পুলিশ অফিসার পরিচয় দিয়ে প্রথমে ভিতরে ঢুকেন। তিনি তাকে প্রকৌশলী পরেশ সরকারের কাছে নিয়ে গেলে পিস্তল উচিয়ে দুই জনকেই জিম্মি করে ফেলেন। এর পর ১০-১২ জনের ডাকাত দল অস্্র নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে অফিসের দুইটি ইউনিটে কর্মরত ২০-২২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হাত-পা ও মুখ বেঁধে জিম্মি করে মালামাল লুট করতে থাকে। ডাকাত দলের সদস্যরা দুই তিনটি পিকআপ ভ্যান ভিতরে ঢুকিয়ে নির্মানাধীন প্রকল্পের ৩৩ কেভি পাওয়ার গ্রিড বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের মুল্যবান যন্ত্রপাতি, সিলেস, আরপিসি, এনার্জিপ্যাক, কম্পিউটার, তার, মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা লুটে নেয়। সন্ধ্যা সারে ৬টা থেকে রাত সারে ১২ টা পর্যন্ত দীর্ঘ সময় এই চলে ডাকাতি। নগদ টাকা ও মালামাল নিয়ে ফিল্মি স্টাইলে ডাকাত দলের সদস্যরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে জিম্মি দশা থেকে তাদের উদ্ধার করে নিরাপত্তাকর্মী আবু সালেক, জব্বার, মফিজুর, মোস্তাফিজ ও সেলিম জানান।
এ ব্যাপারে পিজিসিবির উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুল মোমেন ও সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং আরইডির সুপারভাইজার মো. সালমান বলেন, ডাকাতির ঘটনায় দুই প্রতিষ্ঠানের নগদ টাকাসহ প্রায় ২০ লাখ টাকার মালামাল লুট হয়েছে।
এ ব্যাপারে পিজিসিবির সুপারভাইজার মো. ইকবাল হোসেন এবং ঘটনার সত্যতা স্বীকার বলেন, ডাকাতির ঘটনায় ২০ লাখ টাকার মালামাল লুট হয়েছে। তিনি বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ রিজাউল হক শেখ দীপু বলেন, ঘটনার পর নির্মানাধীন প্রকল্পের ৩৩ কেভি পাওয়ার গ্রিড বিদ্যুৎ অফিসের দুইটি ইউনিট এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ