টাঙ্গাইলে জমি জালিয়াতির মামলায় ১০ জন কারাগারে

0
533

টাঙ্গাইলে নকল কাগজ তৈরি করে জমি ক্রয়-বিক্রয়ের অভিযোগে চার চিকিৎসকসহ ১০ জনকে জেলহাজাতে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার বিকেলে অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মোহসীন এ আদেশ দেন।

তারা হলেন টাঙ্গাইল জেলা বিএমএ-এর সাধারণ সম্পাদক সিলেট মেডিক্যাল কলেজের অধ্যাপক ডা. শহিদুল্লাহ কায়সার, তার স্ত্রী ডা. আসমা আক্তার, টাঙ্গাইল সিভিল সার্জন অফিসের মেডিক্যাল অফিসার আজিজুল হক ও টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার তাপস চন্দ্র সাহা।

অন্যরা হলেন ডা. তাপস চন্দ্র সাহার স্ত্রী মুক্তা রানী প্রামাণিক, ওয়ারেস, আতোয়ার রহমান, মামুনুর রহমান, আব্দুল্লাহ আল মিলন ও সুলতানা ইয়াসমিন।

আদালত পরিদর্শক তানভীর আহমেদ বলেন, ‘শহরের সাবালিয়া এলাকার সাজ্জাত হোসেন ২০২২ সালের জানুয়ারি মাসে ১৪ জনের নামে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন। মামলায় বলা হয় বিবাদিরা সাবালিয়া এলাকায় তাদের ১০ শতাংশ জমি জাল পর্চা তৈরি করে ক্রয় বিক্রয় করেছেন। পরে মামলাটি পিবিআই তদন্ত করে।’

আজ বুধবার মামলার ধার্য দিনে আসামিরা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন প্রার্থনা করেন।

আদালত তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here